অভিমান দেখানোর জায়গা এটা না

বাংলাদেশের মানুষ আমি,আমরা সবাই।পেশাগত কিছু সমস্যা থাকতেই পারে।সেটাকে সকলের সামনে প্রকাশ না করলেই হয়।জিরো টলারেন্স এর মাত্রা জ্ঞান ভুলে যাবেন না।ব্যাংক ব্যালেন্স দেশের সীমানা পেরিয়ে সুইস ব্যাংক অব্দি পৌছে যাচ্ছে কিনা;এখন আর লুকা
নোর কিছু নাই।

যার যার ব্যক্তিগত সমস্যা(রূপচর্চা, বুয়া সংক্রান্ত, বিশেষ করে নারী মহলের অকারণ সমালোচনা–আপি তোমাকে আগে মোটা লাগত,এখন স্লিম হয়ে গেছ অথবা জানো,তোমার পুরো আইডিতে তন্ন তন্ন করে খুজেও তোমার সাহেবের সাথে এক্টা দুইটা ছবিই পেলাম টাইপ)প্রেম বিয়ে ডিভোর্স,কোন নায়িকা বা কোন গায়ক বাবা হলেন,এতদিন ধরে কি করে সংসার করছে রে,আরে দ্যাখ দ্যাখ ও এত বিখ্যাত গায়ক তবু আগে জানিস ড্রাগ নিতো,মরতে বসছিল টাইপ!

 অথবা পুরুষদের আইডি ভর্তি অতি সুন্দরী দের ছবি, কমেন্ট ভর্তি ফিমেল বান্ধবীদের সাথে ভার্চুয়াল মান অভিমানের খেলা অথচ সদ্য বিয়ে করা অথবা দুই তিন বছর হয়ে যাওয়া পুরনো বউয়ের সাথে নিজের ছবি পোস্ট করবার সৎ  সাহস নাই;ও আরো আছে;অমুক ভাই বিয়ে করছে তমুক ভাইয়ের মেয়ে এত বড় অথচ তুমি এখনো বউ ই পাইলা না টাইপ কিছু লেগপুলিং মানসিকতার সাধু পুরুষ ;বন্ধু তালিকাতেও আছে;তাদের প্রতি সবিনয়ে অনুরোধ রইল, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এই জনপ্রিয় মুখদর্শন (!)
যেটার নাম ফেসবুক;এই মাধ্যম টাকে বেছে নেবেন না!বর্তমান গ্লোবালাইজেশনের যূগে আপ্নাদের পরচর্চা পরনিন্দা অথবা ব্যক্তিগত অব্যক্তিগত অভিযোগ, অভিমান দেখানোর জায়গা এটা না!

আর হ্যা,সরকারি চাকরিজীবী হিসাবে জানি,এ-ই সম্পর্কিত এক্টা প্রজ্ঞাপন জারি হয়েছে।তাই বলছি,সময় অর্থ বিত্ত এসবের সঠিক আয়কর পরিশোধ করুন,সাদা কে সাদা আর কালো কে কালো বলবার পাশাপাশি নিজের নিজের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের সনদ টাও সাথে রাখুন!এরপর উত্তর দক্ষিণ পূর্ব পশ্চিম সবদিকের জনগণ নিয়ে ভাববেন।

শুভ দুপুর

No comments